• একজন জাতীয়তাবাদী নেত্রীর আহ্বান- সাবধান! দেশে পাগলা কুকুর নামছে।

    FB IMG 1527102500626 - একজন জাতীয়তাবাদী নেত্রীর আহ্বান- সাবধান! দেশে পাগলা কুকুর নামছে।

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    সাবধান! দেশে পাগলা কুকুর নামছে।

    জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সকল ভাইদের নিরাপদে,চলার অনুরোধ রইল।বদিদের নিয়ে রেব,মাদক বিরোধী আন্দোলনের নামে,আমার নিরীহ ভাইদের ক্রসফায়ারে দেবার নব নীল নকসা এঁকেছে। সুতরাং সোচ্চার হও, আওয়াজ তোল। এক ভাইকে ধরে নিলে,আমরা সকলে মিলে ঝাপিযে পড়ে, আমাদের ভাইদের সেইফ যেন করতে পারি, ইনশাআল্লা !!!!

    ★পদ-পদবীহীন ছাত্র নেতা,বিএনপি নেতা,সমর্থক যে সব ভাই আছেন দলে। তারা কেন ,কোন অপরাধে ক্রসফায়ারে মরবে?

    কেন তারা বেওয়ারিশ লাশ হিসেবে পরিচিত হবে? আমাদের যে সব বড় বড় পদধারী নেতা – নেত্রীরা আছেন। তারা কেন মামলা খান না? গ্রেপ্তার হন না? ক্রসফায়ারে কেন তাদের নামের তালিকা থাকে না?
    এসব দলীয় পরিচয়হীন দলপ্রেমিক ভাইদের নাম কে দেয় ঐ খুনের তালিকায় ?

    আমার জানা মতে মহানগরে এমন অনেক বড় পদের নেত্রী আছেন। যিনি পার্টি অফিসে আসার সময় পুলিশকে ফোন করে আসে এবং পুলিশের ফোনেই ফটোসেশন শেষ হলে ওয়াকফো অফিসে গিয়ে বসে থাকে । মেয়ে বিয়ে দেন লীগের নেতার ঘরে।নিরাপত্তার জন্যে।

    আমরা যারা দল কানা।তারাই মামলা খাই,গ্রেপ্তার হই,জেলে যাই।
    তখন তারা বলে —-কি দরকার ছিল বাড়াবাড়ি করার! মিছিল নিয়ে সামনে আগানোর।

    মোরাফেকের দল।তোরা তো দলরে বেজা কেনার খাতায় তুলছস।আমরা আন্দোলন করি তাও তোদের সহ্য হয়না। কারন থলির বিড়াল বের হয়ে যাচ্ছে।

    তাই —তারেক জিয়ার এখনই দরকার, দলের এ সব ভাজে থাকা নেতাদের চিহ্নিত করে, দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে। ঐ সব পদহীন ত্যাগীদের জায়গা করে দেয়া।

    ★যেন ক্রসফায়ারে লাশ হবার পর, তার পরিচয় ছাত্র,যুব,বিএনপির ত্যাগী নেতা ছিল বলে পরিচিত হতে না হয়।যেন অন্তত মৃত্যুর সময় সে তার একটা ভালোবাসার দলীয় যেন-তেন পদবী হলেও নামের সাথে নিয়ে মরতে পারে তৃপ্তির সাথে।

    ★মরার পরে, মৃতের, লাশের নামে বড় খেতাব দিয়ে লাভ নেই।বেঁচে থাকা জিয়ার সৈনিকের ত্যাগ স্বীকার করে তাকে মূল্যায়িত করুন।একটা চাহ্নিত করনের পদ দিন।যাতে সে খুন হবার সময় বাবা, মা,আত্নীয়,পরিজনের মুখ মনে করার সাথে সাথে আপনাদের মুখটা স্মরন করে তৃপ্তি পায়।মৃত্যু যন্ত্রনাটা কিছুটা কম অনুভব হয়।কেননা, যে দলের জন্যে সে শহীদ হচ্ছে,সে দলে তার একটা পরিচয় আছে। শেষ হলেও পরোটা শেষ হয়নি সময়।কমিটিগুলো করুন নয় আগাছা ঝেড়ে নামহীন সৈরিকদের জায়গা করে দিন। তারা যুদ্ধে যেতে আরো উজ্জিবীত হবে। জীবন দেবে হাসি মুখে দেশের স্বাধীনতার জন্যে।

     

    আখি সুলতানার ফেইসবুক আইডি থেকে-