• ‘দৈত্য’ বধ করে হইচই ফেলে দিয়েছে যে কিশোর

    492574a6d67fe4ab02346aab7d35c85d 5b6ff5752ffd5 - ‘দৈত্য’ বধ করে হইচই ফেলে দিয়েছে যে কিশোর
    পজিটিভ ডেস্কঃ
    রজার্স কাপের শীর্ষ দশ বাছাইয়ের মধ্যে চার খেলোয়াড়কে টানা চার ম্যাচে হারিয়ে হইচই ফেলে দিয়েছেন স্টেফানোস সিতসিপাস। আজ কুড়ি বছর বয়সে পা রাখা খেলোয়াড়টি ফাইনালে মুখোমুখি হবেন রাফায়েল নাদালের।

    স্টেফানোস সিতসিপাস এর চেয়ে ভালোভাবে জন্মদিন পালন করতে পারতেন না। আজ তিনি পার করলেন কৈশোরের গণ্ডি, পা রাখলেন কুড়ি বছর বয়সে। তার আগের কদিন ধরে উনিশ বছর বয়সী এই কিশোর নাকানিচুবানি খাইয়েছেন টেনিসের মহারথীদের। র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দশ বাছাইয়ের মধ্যে চার তারকাকে সিতসিপাস হারিয়েছেন সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে। সেটিও আবার টানা ম্যাচে!

    ১৯৯০ সালে এটিপি ওয়ার্ল্ড ট্যুর টেনিস যাত্রা শুরুর পর প্রথমবারের মতো এমন নজির গড়লেন কোনো কিশোর খেলোয়াড়। সর্বশেষ শনিবার রজার্স কাপের সেমিফাইনালে চতুর্থ বাছাই কেভিন অ্যান্ডারসনকে ৬-৭ (৪), ৬-৪, ৭-৬ (৭) গেমে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছেন সিতসিপাস। এর আগে কোয়ার্টার ফাইনালে তাঁর কাছে হেরেছেন দ্বিতীয় বাছাই ও ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন আলেক্সান্ডার জেভেরভ। তৃতীয় রাউন্ডে নবম বাছাই নোভাক জোকোভিচ আর দ্বিতীয় রাউন্ডে সপ্তম বাছাই ডমিনিক থিয়েমও হেরেছেন এই বিস্ময়-কিশোরের কাছে।

    ফাইনালে সিতসিপাসের প্রতিপক্ষ রাফায়েল নাদাল। এর আগে বার্সেলোনা ওপেনের ফাইনালে এই গ্রিক কিশোরকে (তখন কিশোর) হারানোর অভিজ্ঞতা রয়েছে স্প্যানিশ কিংবদন্তি নাদালের। তবে সিতসিপাস কিন্তু আত্মবিশ্বাসী। নাদালের মতো প্রতিপক্ষের মুখোমুখি হয়েও তাঁর ভাষ্য, ‘কোর্টে যে কোনো কিছু করতে পারি এবং যে কাউকেই হারাতে পারি।’