• রাজস্থানের কাছে হেরে ছিটকে পড়ল বেঙ্গালুরু

    6e66ce530cd2772fc1f9d64362c806a6 5b002f8a4aa74 - রাজস্থানের কাছে হেরে ছিটকে পড়ল বেঙ্গালুরু
    পজিটিভ ডেস্কঃ
    আইপিএলে আজ বাঁচামরার লড়াইয়ে রাজস্থান রয়্যালসের মুখোমুখি হয়েছিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। রাজস্থানের ৫ উইকেটে ১৬৪ রান তাড়া করতে নেমে ১৩৪ রানেই অলআউট হয় বেঙ্গালুরু। এই হারে প্লে অফে খেলার দৌড় থেকে ছিটকে পড়ল বিরাট কোহলির দল। অন্যদিকে জয়ে প্লে অফে খেলার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখল রাজস্থান।

    খাদের কিনারে দাঁড়িয়েছিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। এখান থেকে টানা তিন ম্যাচ জিতে ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখেছিলেন বেঙ্গালুরু অধিনায়ক বিরাট কোহলি। কিন্তু রাজস্থান রয়্যালসের তরুণ লেগ স্পিনার শ্রেয়াস গোপালের ঘূর্ণিতে সেই স্বপ্নের অপমৃত্যু ঘটল। জয়পুরে আজ রাজস্থানের সঙ্গে বাঁচামরার লড়াইয়ে ৩০ রানের হারে আইপিএল ছিটকে পড়লেন কোহলিরা।

    আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ৫ উইকেটে ১৬৪ রান তুলেছিল রাজস্থান। তাড়া করতে নেমে তৃতীয় ওভারেই অধিনায়ক কোহলিকে (৪) হারায় বেঙ্গালুরু। দ্বিতীয় উইকেটে পার্থিব প্যাটেল-এবি ডি ভিলিয়ার্সের ৫৫ রানের জুটি জয়ের স্বপ্ন দেখিয়েছে বেঙ্গালুরুকে। কিন্তু রাজস্থানের লেগ স্পিনার শ্রেয়াস সেই স্বপ্নকে পরিণত করেন দুঃস্বপ্নে।
    বেঙ্গালুরুর টপ অর্ডারে পরবর্তী চার ব্যাটসম্যানকে একাই তুলে নেন শ্রেয়াস। পার্থিব প্যাটেল, মঈন আলী ও মন্দ্বীপ সিংকে তুলে নেওয়ার সঙ্গে বিপজ্জনক হয়ে ওঠা ডি ভিলিয়ার্সকেও ফেরান ২৪ বছর বয়সী এই লেগি। তাঁর দারুণ এক গুগলিতে স্টাম্পিংয়ের শিকার হন ডি ভিলিয়ার্স (৫৩)। বেঙ্গালুরু তখন ১২.৪ ওভারে ৬ উইকেটে ৯৮ তুলে ধুঁকছে। নিজের ৪ ওভারে ১৬ রানে ৪ উইকেট নিয়ে এবারের আইপিএলে এক ম্যাচে যুগ্মভাবে সেরা বোলিং ফিগার তুলে নেন শ্রেয়াস।
    কোহলির দল এখান থেকে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি। ১৬তম ওভারে টানা দুই বলে উমেশ যাদব ও সরফরাজ খানকেও তুলে নেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার বেন লাফলিন। ১০৮ রান তুলতেই ৮ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ততক্ষণে ছিটকে পড়ে বেঙ্গালুরু। বাকি সময়ে টিম সাউদি (১৪) চেষ্টা করেও দলের প্লে অফ স্বপ্নের সমাধি এড়াতে পারেননি।
    বেঙ্গালুরুর এই হারের নেপথ্যে রাজস্থানের দুই লেগ স্পিনার শ্রেয়াস গোপাল ও ইশ সোধির ভূমিকাই বেশি। শ্রেয়াসের লেগ ভেলকি জালে আটকা পড়েছে দলটির টপ অর্ডার। আর সোধি তুলে নিয়েছেন বেঙ্গালুরুর ব্যাটিংয়ে শেষ ভরসা কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমকে। শেষ দিকে লাফলিন ও উনাদকাট ২টি করে উইকেট নিলেও এই দুই লেগ স্পিনার মিলেই মূলত বেঙ্গালুরুর আইপিএল মৌসুমের ইতি টেনে দেন। শেষ পর্যন্ত ১৯.২ ওভারে ১৩৪ রানে থেমেছে বেঙ্গালুরুর ইনিংস।
    রাজস্থান এই জয়ে টেবিলের চারে উঠলেও প্লে অফ খেলার জন্য তাঁদের অন্য দলগুলোর ফলের ওপর নির্ভর করতে হবে। কারণ ১৪ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট সংগ্রহ করা রাজস্থানের হাতে আর কোনো ম্যাচ নেই। অন্যদিকে ১৪ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে আইপিএল থেকে বিদায় নিল বেঙ্গালুরু।
    এর আগে ব্যাটিংয়ে নামা রাজস্থানকে লড়াকু সংগ্রহ এনে দেন রাহুল ত্রিপাঠি। ৫৮ বলে ৮০ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলেন তিনি। ৩৩ রান করেন অধিনায়ক অজিঙ্কা রাহানে। বেঙ্গালুরুর হয়ে ৩ উইকেট নেন পেসার উমেশ যাদব।