• সেনাবাহিনীর মেয়ে যখন বখাটেদের উৎপাতে আত্মহত্যা, সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা কোথায় ?

    FB IMG 1508152278314 - সেনাবাহিনীর মেয়ে যখন বখাটেদের উৎপাতে আত্মহত্যা, সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা কোথায় ?

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    বখাটেদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে নিজের হাতে প্রাণ বিসর্জন দিলো শামসুন নাহার চাঁদনী (১২)। এভাবে আর কত চাঁদনীর মৃত্যু হলে বখাটেদের উৎপাত বন্ধ হবে? কত মায়ের বুক খালি হলে জাতি এ কলঙ্ক থেকে মুক্ত হবে?
    খুলনার ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক-অভিভাবক, সুশীল সমাজের এমন প্রশ্নের জবাব কেই বা দেবে। একজন অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনীর সার্জেন্টের মেয়ে যখন বখাটেদের উৎপাতে আত্মহত্যা করে তখন সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা কোথায়? এমন প্রশ্ন এখন সবার মুখে মুখে।
    বখাটেদের উৎপাতে অতিষ্ঠ হয়ে আত্মহননের পথ বেছে নেওয়া স্কুল ছাত্রী চাঁদনীর আত্মহত্যার প্ররোচনাকারী বখাটে শামীম হাওলাদার শুভ ও তার সহযোগীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে রোববার (১৫ অক্টোবর) পৃথক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। কর্মসূচি পালন করেছে খুলনা জিলা স্কুল ও সরকারি করোনেশন বালিকা বিদ্যালয়ের ক্ষুব্ধ শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকরা।
    চাঁদনী খুলনা সরকারি করোনেশন বালিকা বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী ছিল। সে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষায় জিপিএ-ফাইভ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছিল। দু’বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে সে ছোট।
    চাঁদনীর আত্মহননের প্ররোচনার অভিযোগে তার বাবা সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট রবিউল ইসলাম শনিবার সন্ধ্যায় নগরীর লবণচরা থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় বখাটে শামীম হাওলাদার শুভ, তার বাবা শাহ আলম হাওলাদার, মা জাকিয়া বেগম, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেত্রী মাফিয়া কবির ও বন্ধু হাসিবসহ অজ্ঞাত পরিচয় আরও তিন-চারজনকে আসামি করা হয়। তাদের মধ্যে পুলিশ শুভর সহযোগী মাফিয়া কবিরকে গ্রেফতার করেছে। বাকি আসামিরা পলাতক।
    চাঁদনীর বাবা রবিউল বলেন, পথে ঘাটে বখাটে শুভর নেতৃত্বে তার বন্ধুরা মিলে আমার মেয়েকে বিরক্ত করতো। প্রতিবাদ করলে বাসা থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দিতো। সবশেষ বাড়িতে এসে আমাদের উপর হামলা চালালো। অপমান সহ্য করতে না পেরে চাঁদনী আত্মহত্যা করলো।
    আক্ষেপ করে তিনি বলেন, কত চাঁদনীর মৃত্যুতে বন্ধ হবে বখাটেদের উৎপাত!
    মামলার তদন্ত কর্মকর্তা লবণচরা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইউসুফ আলী গ্রেফতার মাফিয়া কবিরকে রোববার খুলনার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। তিনি জানান, সোমবার রিমান্ড শুনানি চাঁদনীর বাবার কান্না এবং স্কুল ড্রেসে চাঁদনী, ছবি: বাংলানিউজ
    হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
    লবণচরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম বলেন, বখাটে শুভসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে।
    উল্লেখ্য, চাঁদনীর বাবা রবিউল নগরীর হরিণটানা প্রাইমারি স্কুল এলাকায় পরিবারসহ বসবাস করছেন। তাদের প্রতিবেশী সেনিটারি মিস্ত্রি শাহ আলমের ছেলে পাইপমিস্ত্রি শুভ এলাকায় বখাটে হিসেবে পরিচিত। বখাটে শুভ চাঁদনীকে স্কুলে যাওয়া-আসার পথে দলবলসহ উত্ত্যক্ত করতো। শুক্রবার সন্ধ্যায় শুভ তার বাবা শাহ আলম, কথিত ঘটক মাফিয়া কবির ও ৭/৮জন সহযোগীকে নিয়ে চাঁদনীদের বাসায় যায়। এ সময় চাঁদনীর বাবা রবিউলের কাছে তারা শুভর সঙ্গে চাঁদনীর বিয়ের প্রস্তাব দেন। রবিউল মেয়ের বাল্য বিয়ে দিতে অস্বীকার করলে তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে তারা রবিউলকে মারধর করেন। এ সময় ঘটক স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেত্রী মাফিয়া চাঁদনীকে চড় মারেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে চাঁদনী পাশের রুমে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেয়। পরে শুভ, তার বাবা ও মাফিয়াসহ বখাটেরা চাঁদনীকে তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়ে চলে যায়। রাত ৯টার দিকে শুভ দলবলসহ আবারও চাঁদনীদের বাসায় গিয়ে হুমকি দিয়ে ঘরের দরজা খুলে দিতে বলে। তখন চাঁদনীর বাসার কেউ দরজা না খুললে শুভ ও মাফিয়া রবিউলকে হুমকি দিয়ে বলেন, এর পরিণাম ভালো হবে না। বাড়ির লোকজন চাঁদনীর খোঁজ নিতে গিয়ে ঘরের দরজা বন্ধ দেখতে পায়। অনেক ডাকাডাকি করেও সে দরজা না খোলায় দরজা ভেঙে তাকে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। খবর পেয়ে গভীর রাতে পুলিশ চাঁদনীর মরদেহ উদ্ধার করে।