• Category Archives: পাঁচমিশালি

    একজন হাসন রাজা যখন গণতন্ত্রের যোদ্ধা। শেখ আরিফুররহমান।

    FB IMG 1532063435616 - একজন হাসন রাজা যখন গণতন্ত্রের যোদ্ধা। শেখ আরিফুররহমান।

    যুন্গ- আহবায়ক,ঢাকা- মহানগর জাসাস।

    “লোকে বলে বলে রে ঘর বাড়ি বালা না আমার, কি ঘর বানাইমু আমি শুন্যের ও মাঝার… “।

    হাসন রাজার গানের লাইন গুলো যখন রুপক অর্থে জাসাস এর জন্য বাস্তব হয়ে দাড়িয়েছিলো ঠিক তখনি দেশনেত্রী বেগম খালেদা


    ফ্রেশ সোল আপের বিজ্ঞাপনে সেরা ৫ তরুণ তারকা

    9105046448f9dad875188d21e91ff3a2 5b142bc434050 - ফ্রেশ সোল আপের বিজ্ঞাপনে সেরা ৫ তরুণ তারকা

    ৭১ ডেস্কঃ

    আকাশের মন খারাপ। অবিরাম গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। সকাল গড়িয়ে দুপুর, সূর্য মামার দেখা দেখা নেই, তাই থেমে আছে সব। লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনের সঙ্গে সূর্যের যেন এক অবিচ্ছেদ্য সম্পর্ক। কথাগুলো সোল আপ-এর বিজ্ঞাপনের শুটিং সেটের কথা। মেঘনা গ্রুপের ফ্রেশ নিয়ে এসেছে নতুন কোমল পানীয় সোল আপ। লেবুর সঙ্গে কাঁচা আমের অনন্য ফ্লেভারেড সোল আপ-এর স্বাদ বাজারের আর সব কোমল পানীয় থেকে একেবারেই অন্যরকম।

    জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী হাবিবের জিঙ্গেলের সুরে দেশের উঠতি প্রজন্মের সেরা ৫ তারকার একটি দল নিয়ে নির্মিত হচ্ছে সোল আপের এই বিজ্ঞাপন। মিনার, সায়েরা, পড়শি, প্রীতম আর ব্যামি আছেন এ দলে। দৈনন্দিন জীবনের এক ঘেয়েমি কাটাতে ঘুরতে বেড়িয়ে পড়া এই বন্ধুদের অন্যরকম এক অ্যাডভেঞ্চার নিয়েই এগিয়েছে গল্প। যাত্রাপথে তাদের দুষ্টুমি-খুনসুটি আর সবুজ প্রকৃতির দৃশ্য বন্দী হয়েছে ক্যামেরায়। মোহনীয় রূপ আর প্রকৃতির সঙ্গে মিলে-মিশে থাকা সবুজ ক্যাম্পাস জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ও কমলাপুর রেলস্টেশনে দৃশ্যায়ন হয়েছে টিভিসিটির।

    দৈনন্দিন জীবনের এক ঘেয়েমি কাটাতে ঘুরতে বেড়িয়ে পড়া বন্ধুদের এক অ্যাডভেঞ্চার নিয়েই এগিয়েছে গল্প। ছবি: প্রেস বিজ্ঞপ্তিদৈনন্দিন জীবনের এক ঘেয়েমি কাটাতে ঘুরতে বেড়িয়ে পড়া বন্ধুদের এক অ্যাডভেঞ্চার নিয়েই এগিয়েছে গল্প। ছবি: প্রেস বিজ্ঞপ্তি‘বিয়াই সাব, লোকাল বাস’ খ্যাত মিউজিক পরিচালক প্রীতম আর তরুণদের শিল্পী মিনার ও পড়শি ও ব্যামিকেও প্রথমবারের মতো দেখা যাবে বিজ্ঞাপনের ফ্রেমে। সহশিল্পী ভূমিকায় রয়েছেন মডেল ও অভিনেত্রী সায়রা। টিভিসি ও মিউজিক ভিডিওর পরিচালক তানিম রহমান অংশুর পরিচালনায় বিজ্ঞাপনটি তৈরি হয়েছে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি


    ভুল করলে বই পড়া!

    3eb5ad207b75a86e0f70fd6b8f3a3b09 5affc74a93aba - ভুল করলে বই পড়া!

     

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    পড়াশোনার পাশাপাশি হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে খণ্ডকালীন চাকরি করেন আলিম হোসেন (ছদ্মনাম)। দায়িত্ব মানি এক্সচেঞ্জ হিসাবরক্ষকের সহকারী, যাত্রীদের অর্থ বিনিময়ে সহায়তা করাই তাঁর কাজ। কিন্তু একদিন দায়িত্বের বাইরে সুবিধা নেওয়ার আশায় যাত্রীদের ডেকে ডেকে মানি এক্সচেঞ্জে আসতে বলেন আলিম। এই কাজ তিনি করতে পারেন না। তাই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আইন অনুযায়ী শাস্তি দেন। সঙ্গে পড়তে দেন বই! ভুলের জন্য না হয় শাস্তির বিধান, কিন্তু বই পড়ানো কেন?

    ‘কারণ, তাঁর বিবেককে জাগিয়ে তোলা। এমন লঘু অপরাধ যাঁরা করছেন, প্রচলিত আইনে সাজা দেওয়ার পাশাপাশি তাঁদের পড়তে দেওয়া হচ্ছে বই। তিনি যখন বই হাতে ঘর থেকে বেরোবেন, সবাই বুঝবে তিনি কোনো ভুলের মাশুল দিচ্ছেন। আর বইটি পড়া বাধ্যতামূলক,


    সারাটা জীবন একাই পার করেছি শুধু অনিকের কথা ভেবে – নায়িকা ববিতা।

    FB IMG 1526285946132 - সারাটা জীবন একাই পার করেছি শুধু অনিকের কথা ভেবে - নায়িকা ববিতা।

     

    পজিটিভ ডেস্কঃ

     

    ‘আমি ঘণ্টার পর ঘণ্টা রাস্তায় গাড়িতে বসে থাকতাম। কখন আমার ছেলে নিচে নামবে। ববিতা নায়িকা, ওসব গুল্লি মারো (হাসি)!’ কথাগুলো চলচ্চিত্রের গুণী অভিনেত্রী ববিতার। প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপে অভিনয়ের ব্যস্ততার ফাঁকে মা হয়ে কীভাবে


    পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে এ কেমন কাণ্ড!

    ddwfwefrewfewf - পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে এ কেমন কাণ্ড!

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    পৃথিবীতে প্রতিদিনই কোথাও না কোথাও অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। খুন, ধর্ষণ, মাদক ব্যবসাসহ নানা অপরাধ। আর অপরাধীদের পাকড়াও করতে তৎপর থাকে পুলিশ। তবে পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে অপরাধীরাও নানা রকম ছল চাতুরির আশ্রয় নিয়ে থাকেন। পালিয়ে বেড়ায় এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায়।

    কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ার বাসিন্দা ক্রিস্টোফার শান এবার পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে অভিনব পন্থা নিয়েছেন। গ্রেপ্তার এড়াতে ঢুকে গেছেন ডিপ ফ্রিজে।

    শান পেশায় মাদক ব্যবসায়ী। মারিজুয়ানা, হেরোইনসহ নানা ধরনের মাদক বিক্রয় করেন তিনি। ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া পুলিশের মোস্ট ওয়ান্টেড লিস্টে নাম রয়েছে এই মাদক বিক্রেতার। গত মার্চে ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া পুলিশ দপ্তরে একটি ফোন কল আসে। অপর প্রান্ত থেকে এক ব্যক্তি ক্রিস্টোফারের লুকিয়ে থাকার ঠিকানা জানায়। ঠিকানার সূত্র ধরে ওই বাড়িতে হানা দেয় পুলিশ।পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ক্রিস্টোফার একটি ব্যাগে মাদক নিয়ে লুকিয়ে পড়ে।

    পুলিশ তন্ন তন্ন করে খুঁজতে থাকে বাড়ির ভেতর। অবশেষে তাকে পাওয়া যায় বাড়ির নিচতলায় রাখা একটি ডিপ ফ্রিজের ভেতর। ফ্রিজ থেকে টেনে বের করা হয় তাকে। তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় সাতাশ ব্যাগ মারিজুয়ানা, সাত ব্যাগ হেরোইন।

    বর্তমানে ক্রিস্টোফার ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। আর মাদক বিক্রি করবে না এই মর্মে তার কাছ থেকে চল্লিশ হাজার মার্কিন ডলারের একটি বন্ডে স্বাক্ষর নেয়া হয়েছে।


    প্রতিভার প্রকাশ বাল্মীকিপ্রতিভায়

    201e4b879114375a6390aecf3e6f7bb4 5ac9b0fed926e - প্রতিভার প্রকাশ বাল্মীকিপ্রতিভায়

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    ‘আপু, খেয়াল করেছেন? ডান দিকের ছোট ডাকাতটা আমার মেয়ে!’ দর্শকসারিতে বসে এভাবেই নিজের মেয়েকে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছিলেন এক অভিভাবক। গত সোমবার। সেদিন সন্ধ্যায় সানিডেল স্কুলের (মিডল সেকশন ১) শিক্ষার্থীরা শিল্পকলা একাডেমিতে মঞ্চস্থ


    জীবন হাতে নিয়ে জীবিকা

    cf793c55af3eed278f137b267891cb5d 5ac88cc034ef6 - জীবন হাতে নিয়ে জীবিকা

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    নিপাট সাদাসিধা চেহারার মানুষ মো. শাকিল। বয়স ২৪ বছর। প্রথম দেখায় তেমন সাহসী মনে হয় না। তবে তাঁর কাজের কথা শোনার পর মানতেই হলো শাকিল শুধু সাহসী নন, বরং দুঃসাহসী। এই তরুণ মোটরসাইকেলের খেলা দেখান। প্রাণ হাতে করে মৃত্যুকূপে ঘণ্টায় ৬০ কিলোমিটার বেগে মোটরসাইকেল চালান। চলন্ত মোটরসাইকেলে কখনো শুয়ে পড়েন, দুই হাত মেলে দাঁড়িয়ে যান, আবার কখনো বা শুধু দুই পায়ে নিয়ন্ত্রণ নেন। গা ছমছম করা শাকিলের এমন কসরত দেখে আনন্দ পান কূপের চারপাশের উঁচু জায়গায় দাঁড়িয়ে থাকা দর্শক।

    সার্কাস বা প্রদর্শনীর এই খেলা ‘মৃত্যুকূপ’ নামে পরিচিত। এটি আসলে গাছের গুঁড়ি, কাঠের পাটাতন, বাঁশ ও লোহার আংটা দিয়ে তৈরি গোলাকার বিশেষ এক খাঁচা। এর ভেতরে কাঠের পাটাতন মাটি থেকে ২০-২৫ ফুট ওপরে উঠে গেছে। কূপের জমিন থেকে এই দেয়াল


    উদ্ভাবনের আনন্দ

    32da392d59b6b04ca43a8a7727050e34 5ac9b1ab3d8da - উদ্ভাবনের আনন্দ

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    রান্নাঘরে গ্যাসের লাইন ফুটো হয়ে কিংবা গ্যাসলাইন বিস্ফোরণের কারণে অগ্নিদগ্ধ হওয়ার খবর মাঝেমধ্যেই সংবাদমাধ্যমে উঠে আসে। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি সকালে রাজধানীর উত্তরায় একটি ভবনের সপ্তম তলার ফ্ল্যাটে এমনই একটি দুর্ঘটনা ঘটেছিল।


    চা খান, পত্রিকা পড়ুন

    ca4dd6c9ffaf29701f7e2fe1a0d6940f 5ac9a9341d716 - চা খান, পত্রিকা পড়ুন

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    রাজশাহীর বাগমারা উপজেলা সদর থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে খাঁপুর মোড়। এই মোড়টায় বেশ কয়েকটি চায়ের দোকান। তবে নাসের আলীর দোকানটা একটু আলাদা। কারণ এই দোকানে টেলিভিশনে নাটক-সিনেমা দেখিয়ে ক্রেতা টানা হয় না। নাসের আলীর দোকানে মানুষ চা পান করতে আসেন পত্রিকা পড়ার টানে। দৈনিক পত্রিকা পড়ার অভ্যাস বাড়ানোর জন্য তাঁর এই উদ্যোগ ১৪ বছরের।

    গত ১৭ মার্চ তাঁর দোকানে গিয়ে কথা হলো বেশ কয়েকজন ক্রেতা ও পাঠকের সঙ্গে। তাঁরা বললেন, এলাকাটি প্রত্যন্ত। পত্রিকা বিক্রেতারা তেমন একটা আসেন না এদিকে। আগ্রহী মানুষেরা উপজেলা সদরে গিয়ে পত্রিকা পড়েন কিংবা কেনেন। তবে খাঁপুরের চা-বিক্রেতা নাসের আলীর জন্য পত্রিকা পড়ার সুযোগ পাওয়া যাচ্ছে।

    ৫৮ বছর বয়সী নাসের আলী জানালেন, ২০০৪ সাল থেকে তিনি তাঁর চায়ের দোকানে পত্রিকা রাখা শুরু করেন। সে সময় জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) দ্বিতীয় প্রধান সিদ্দিকুর রহমান ওরফে বাংলা ভাইয়ের সম্পর্কে এলাকার লোকজন জানতে চাইত। তাঁর চায়ের দোকানে লোকজন এসে বিভিন্ন গল্প করত। নাসের আলী ভাবলেন, উপজেলা সদর থেকে পত্রিকা আনলে আসল খবর জানা যাবে।

    সেই থেকে শুরু। এখন পত্রিকার সংখ্যা এবং পাঠকের সংখ্যাও বেড়েছে। প্রতিদিন দুই শতাধিক পাঠক এসে পত্রিকা পড়েন নাসেরের চায়ের দোকানে, এমনটাই জানালেন তিনি।

    স্থানীয় একজন বললেন, দুপুরে পৌঁছায় প্রতিদিনের পত্রিকা। তখন থেকে শুরু হয় পাঠকের আনাগোনা। তবে বিকেল থেকে বাড়ে পাঠকের সংখ্যা। পাঠকের সংখ্যার দিকে নজর রেখে পত্রিকার সংখ্যা বাড়িয়েছেন নাসের আলী। প্রতিদিন রাজশাহীর স্থানীয় তিনটি পত্রিকা কিনে আনেন নাসের। এ ছাড়া দেশ এবং দেশের বাইরে কোনো বড় ঘটনা ঘটলে স্থানীয় পত্রিকার পাশাপাশি জাতীয় পত্রিকা কেনেন তিনি।

    পল্লি চিকিৎসক দিলীপ কুমার প্রতিদিন বিকেলে এসে এই দোকানে পত্রিকা পড়েন। বললেন, ‘নাসের আলী আসলে মানুষকে পত্রিকা পড়িয়ে মজা পান।’ ভবানীগঞ্জ কলেজের অধ্যক্ষ হাতেম আলীর কথায়, ‘নাসের আলীর মতো একজন চা-দোকানি নিজের টাকায় এত দিন ধরে মানুষকে পত্রিকা পড়িয়ে আসছেন, এটাই বড় কথা। তাঁর এই উদ্যোগ সত্যি প্রশংসনীয়।’

    নাসের আলী নবম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। কিছুদিন গ্রামের একটি স্কুলে শিক্ষকতা করলেও পরে সনদপত্র না থাকায় চাকরি স্থায়ী হয়নি। একসময় চা বিক্রি শুরু করেন। এই আয়ের টাকায় সংসার চলে তাঁর। সংসারে আছেন স্ত্রী এবং এক ছেলে। নাসের আলী ছেলেকে পড়াশোনা করিয়েছেন। স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নিয়ে এখন একটি ওষুধ বিপণন পেশায় আছেন।

    চায়ের দোকানে পত্রিকা রাখতে মাসে ৪০০ টাকার মতো খরচ হয় নাসের আলীর। কিছু টাকা বাঁচিয়ে পরিশোধ করেন পত্রিকার বিল। নাসের আলী বললেন, সংসারে অভাব থাকলেও মানুষকে পত্রিকা পড়ানোর কাজটি তিনি চালিয়ে যেতে চান।


    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্বনামধন্য বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সরকারি চাকুরী না পাওয়ায় হতাশায় আত্মহত্যা।

    PhotoGrid 1522588436996 picsay - ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্বনামধন্য বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সরকারি চাকুরী না পাওয়ায় হতাশায় আত্মহত্যা।

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ ভবন থেকে লাফ দিয়ে তানভীর রহমান (৩০) নামের এক ছাত্র আত্মহত্যা করেছেন। শনিবার রাত আটটা ৩৮ মিনিটের দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন এমবিএ ভবনের নবমতলা থেকে লাফ দিয়ে তিনি


    সাঁতরে সাঁতরে সাগর পাড়ি

    a6340c245a6e5f99805da914507a6e8f 5ab62168e9a8d 1 - সাঁতরে সাঁতরে সাগর পাড়ি

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    পুকুর বা সুইমিংপুল ছাড়া জীবনে কখনো নদীতেও সাঁতার দেয়নি বগুড়ার মেয়ে মিতু আখতার। ১৬ বছরের সেই মিতু এবার সাঁতরাল বঙ্গোপসাগরে। টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ থেকে সেন্ট মার্টিন পর্যন্ত ১৬ দশমিক ১ কিলোমিটার দূরত্বের ‘বাংলা চ্যানেল’