• Category Archives: ব্রাহ্মনবাড়িয়া সদর

    আজ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপির আয়োজনে শহীদ জিয়ার ৮৩তম জন্ম বার্ষিকীর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।ভিডিও সহ….

    50466390 1454273251369239 5749199491068592128 n - আজ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপির আয়োজনে শহীদ জিয়ার ৮৩তম জন্ম বার্ষিকীর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।ভিডিও সহ....

    পজিটিভ ডেস্ক ;

    আজ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপির আয়োজনে মহান স্বাধীনতার ঘোষক, সততার উজ্জ্বল নক্ষত্র বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা, জাতীয়তাবাদের মহান কাণ্ডারী, বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা ও সার্কের মূল কারিগর শহীদ বীর উত্তম জিয়াউর

    জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ভিপি লিটনের পিতা আব্দুল জলিল চৌধুরীর জানাজা সম্পন্ন। জেলা বিএনপি’র শোক।

    50553675 290547225150241 7950135639154884608 n - জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ভিপি লিটনের পিতা আব্দুল জলিল চৌধুরীর জানাজা সম্পন্ন। জেলা বিএনপি'র শোক।

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলা বিএনপি’র দপ্তর সম্পাদক, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি জনাব জহিরুল ইসলাম চৌধুরী লিটন এর পিতা জনাব আব্দুল জলিল চৌধুরী বার্ধক্যজনিত কারনে আজ সকালে শহরের একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল

    জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ভিপি লিটনের পিতা আব্দুল জলিল চৌধুরীর ইন্তেকাল।

    50283458 1290163497809432 8751458034145820672 n - জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ভিপি লিটনের পিতা আব্দুল জলিল চৌধুরীর  ইন্তেকাল।

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলা বিএনপি,র দপ্তর সম্পাদক, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি জনাব জহিরুল ইসলাম চৌধুরী লিটন এর পিতা জনাব আব্দুল জলিল চৌধুরী বার্ধক্যজনিত কারনে আজ সকালে শহরের একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল

    ব্রাক্ষনবাড়িয়ার বিশিষ্ট সাংবাদিক সাহসী কলম যোদ্ধা সত্যের প্রতীক মো: নিয়ামুল হুদা রতনকে পুলিশবাহিনী নিজ বাসভবন থেকে গ্রেপ্তার করেন।

    48394650 2221527108085620 7812526317215154176 n - ব্রাক্ষনবাড়িয়ার বিশিষ্ট সাংবাদিক সাহসী কলম যোদ্ধা সত্যের প্রতীক মো: নিয়ামুল হুদা রতনকে  পুলিশবাহিনী নিজ বাসভবন থেকে গ্রেপ্তার করেন।

    নিজস্ব প্রতিবাদকঃ

    #Breaking #News,,,,,,,,,,,,,,

    আজ রাত ২ ঘটিকাই  ব্রাক্ষনবাড়িয়ার বিশিষ্ট সাংবাদিক সাহসী কলম যোদ্ধা সত্যের প্রতীক জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া #পজেটিভ টিভির মালিক সাবেক ছাত্রনেতা ব্রাক্ষণবাড়িয়া

     

    জেলা জাসাস এর সম্ভাব্য সভাপতি পাইকপাড়ার কৃতি সন্তান শ্রদ্ধেয় আমার পিতা জনাব #মো: #নিয়ামুল হুদা রতনকে ভোট ডাকাত আওয়ামী সরকারের আজ্ঞাবহ পুলিশবাহিনী নিজ বাসভবন থেকে গ্রেপ্তার করেন।
    আমি এই গ্রেপ্তারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং অবিলম্বে নি:শর্ত মুক্তির দাবি করছি।


    শান্তিময় গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গড়তে ধানের শীষে ভোট দিন- হাজী সিরাজুল ইসলাম সিরাজ।ভিডিও সহ..

    received 929051717289923 - শান্তিময় গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গড়তে  ধানের শীষে ভোট দিন- হাজী সিরাজুল ইসলাম সিরাজ।ভিডিও সহ..

    বিজয়নগর প্রতিনিধিঃ

     

    বিএনপি মনোনীত প্রার্থী তিতাস পাড়ের আপামর জনসাধারণের প্রাণস্পর্শী জননন্দিত জননেতা ইঞ্জিঃ খালেদ হোসেন মাহবুব শ্যামল এর ধানের শীষের সমর্থনে বুধন্তী ইউনিয়নের কেনা গ্রামে উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত উঠান বৈঠকটি বিজয়নগর


    ব্রাহ্মণবাড়িয়া হেফাজতের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

    47686662 322700041680048 2702553496074321920 n - ব্রাহ্মণবাড়িয়া হেফাজতের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    গত শনিবার টঙ্গির ইজতেমার ময়দানে নিরীহ তাবলীগী সাথী ও মাদ্রাসার ছাত্রদের উপর ভ্রান্ত সা’দ পন্থীদের সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে এবং দোষীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবিতে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর দেশব্যাপী বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশের অংশ হিসেবে গতকাল ০৩ ডিসেম্বর সোমবার বাদ আসর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা হেফাজতে ইসলাম এর উদ্যোগে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল সারা শহর প্রদক্ষিণ শেষে স্থানীয় প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণে জেলা প্রচার সম্পাদক মাওলানা বুরহান উদ্দিন আল মতিনের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

    এ সময় বক্তব্য রাখেন হেফাজতে ইসলাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সহকারী প্রচার সম্পাদক মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান, মাওলানা হাবিবুল্লাহ, হাজী ইয়াকুব আমিনী, মুফতি জাকারিয়া খান, মুফতি ইসহাক আআল হুসাঈনী, কওমি ছাত্র ঐক্যের সভাপতি হাফেজ মাসউদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আনাস বিন আবুল খায়ের ও কোষাধ্যক্ষ জয়নাল আবেদীন প্রমুখ। বক্তাগণ বলেন, টঙ্গির ইজতেমার ময়দানে তাবলীগের সাথীদের উপর ভ্রান্ত সা’দ পন্থী সন্ত্রাসী বাহিনী সুপরিকল্পিত ভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে যে হামলা চালিয়েছে তা শুধু পেশাদার খুনিরা ই করতে পারে। প্রকৃত তাবলীগের অনুসারীরা কখনো এমন জঘন্যতম হত্যাকান্ড ঘটাতে পারেনা। বক্তাগণ অবিলম্বে চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি দেয়ার জন্য সরকার ও প্রশাসনের প্রতি জোরদাবি জানিয়ে বলেন, অন্যথায় দেশের সার্বিক পরিস্থিতিকে শান্ত রাখতে প্রয়োজনে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কর্মীরা এইসকল সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করতে প্রয়োজনীয় দায়িত্ব পালন করতে বাধ্য হবে।


    ১০ ডিসেম্বর মহান বিজয় মাসের বিজয় র‌্যালি সফল করুন : আল মামুন সরকার

    47216061 1921009231345541 4836830708049641472 n - ১০ ডিসেম্বর মহান বিজয় মাসের বিজয় র‌্যালি সফল করুন : আল মামুন সরকার

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগ। গত ৩০ নভেম্বর অনুষ্ঠিত জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এর মধ্যে আগামী ১০ ডিসেম্বর বিজয় র‌্যালি বের করা হবে। ঐ দিন সকাল ১০ টায় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠণের সর্বস্তরের নেতাকর্মী, বীর মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের জনতাকে নিয়ে বিজয় র‌্যালিটি শহর প্রদক্ষিণ করবে।

    বিজয় র‌্যালি বাস্তবায়নে গত রবিবার রাতে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ভাষা চত্বরে এক প্রস্তুতি সভা করেছে পৌর আওয়ামী লীগ। পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মুসলিম মিয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার। এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি পৌর মেয়র মিসেস নায়ার কবীর, যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু, সাংগঠণিক সম্পাদক এড. মাহবুবুল আলম খোকন। সভায় পৌর কমিটির যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, তাঁতীলীগ, ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ সহ সকল ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদগণ উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার বিজয় মাসের বিজয় র‌্যালি সফলে সকলকে সক্রিয় কাজ করার আহবান জানান।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি


    বাংলাদেশকে রাজাকারমুক্ত করতে হলে মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বিজয় দিবসের চেতনা ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে হবে

    47355510 534482897071624 5240049045321285632 n - বাংলাদেশকে রাজাকারমুক্ত করতে হলে মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বিজয় দিবসের চেতনা ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে হবে

    পজিটিভ ডেস্কঃ

     

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার বলেছেন, বাংলাদেশকে রাজাকারমুক্ত করতে হলে মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বিজয় দিবসের চেতনা ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় জাগ্রত করতে হবে নতুন প্রজন্মকে। এইজন্য আগামী ১০ ডিসেম্বরের বিজয় র‌্যালি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার।

    তিনি গতকাল ০৩ ডিসেম্বর সোমবার রাতে শহরের শহর সমাজসেবা প্রকল্প কার্যালয়ে বিজয় র‌্যালি সফলে প্রস্তুতি সভায় এ কথা বলেন। এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ সহসভাপতি মুজিবুর রহমান বাবুল, যুগ্ম-সম্পাদক গোলাম মহিউদ্দিন খোকন, জেলা মহিলালীগ সাধারণ সম্পাদক এড. তাসলিমা সুলতানা খানম নিশাত, জেলা কৃষকলীগ সভাপতি সাদেকুর রহমান শরীফ, জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস, জেলা শ্রমিকলীগ সাধারণ সম্পাদক মালেক চৌধুরী, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি এড. লোকমান হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সাইদুজ্জামান আরিফ, জেলা যুব মহিলালীগ সভাপতি রাবেয়া খাতুন রাখী, সাধারণ সম্পাদক আলম তারা দুলি, জেলা তাঁতীলীগ সভাপতি আসাদুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দুলাল, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল, সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শোভন।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি


    আওয়ামীলীগের মনোনয়ন চেয়েও যারা পায়নি তাদের হৃদয়ের রক্তক্ষরণ-মনোবেদনা আমরা অনুভব করতে পারি

    47098292 121938928737934 2582153068707577856 n - আওয়ামীলীগের মনোনয়ন চেয়েও যারা পায়নি তাদের হৃদয়ের রক্তক্ষরণ-মনোবেদনা আমরা অনুভব করতে পারি

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি,কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী পরিষদের সদস্য,বীর মুক্তিযোদ্ধা জননেতা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এম.পি বলেছেন, আওয়ামীলীগের মনোনয়ন চেয়েও যারা পায়নি তাদের হৃদয়ের রক্তক্ষরণ-মনোবেদনা আমরা অনুভব করতে পারি। তাদের প্রতি আমরা সমব্যথী,তাদের পাশে আমরা আছি-থাকবো। তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের ত্যাগ-নিবেদন আর আনুগত্যের উপরই বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ টিকে আছে-বাংলাদেশকে এগিয়ে নিচ্ছে।

    তিনি মনোয়ন বঞ্চিত নেতাদের অতীতের সকল ত্যাগ-আনুগত্যের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে ধৈর্য্যের পরিচয় দিয়ে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে সক্রিয় হওয়ার আহবান জানান।

    তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে,সক্রিয় ভূমিকা পালন করলে কেউ আওয়ামীলীগকে পরাজিত করতে পারবে না।

    আজ ৩০ নভেম্বর শুক্রবার বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগ আয়োজিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে প্রস্তুতি নির্ধারণে বিশেষ বর্ধিত সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

    জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকারের সঞ্চালনায় এ সময় বক্তব্য রাখেন সহসভাপতি তাজ মো. ইয়াছিন, মুজিবুর রহমান বাবুল, যুগ্ম-সম্পাদক মঈনউদ্দিন মঈন, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. মাহবুবুল আলম খোকন,শাহআলম সরকার,অর্থ সম্পাদক মহসিন মিয়া, কার্যকরী সদস্য কাজি মোর্শেদ কামাল,আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক হাজি সফিউল্লাহ। এসময় সহসভাপতি পৌর মেয়র মিসেস নায়ার কবীর, হেলাল উদ্দিন, অ্যাড. আবু তাহের,জাতীয় পরিষদ সদস্য আবুল কালাম ভূঞা,যুগ্ম-সম্পাদক মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু, গোলাম মহিউদ্দিন খান খোকন সহ সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, কার্যকরী পরিষদের সদস্য,উপজেলা কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক,আহবায়ক, যুগ্ম-আহবায়ক, অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের জেলা শাখার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকগণ উপস্থিত ছিলেন।

    সভায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৫ টি আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী মনোনয়ন দেয়ায় আওয়ামীলীগ সভাপতি শেখ হাসিনার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে ৫ টি আসনের আওয়ামীলীগের প্রার্থীদেরকে অভিনন্দন জানানো হয়। এছাড়া সভায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে অর্থবহ করার লক্ষে নিবন্ধিত দল ও প্রার্থীদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করায় ধন্যবাদ জানানো হয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী হিসাবে ব্যস্ত থাকার সময় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম ভূঞা কার্যকরী সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করবে মর্মে সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

    সভায় যে সকল এলাকায় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আহবান জানানো হয়।

    সভায় উল্লেখ করা হয়, যারা দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থান নেবেন বা কাজ করবেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সিদ্ধান্ত অনুসারে তারা দল থেকে আজীবনের জন্য বহিস্কৃত হবেন।

    সভায় জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দকে নিজ নিজ এলাকায় দায়িত্ব পালন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি


    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি নির্বাচনী আসনে ৮৬ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল

    47067718 572687676506171 8737163352192581632 n - ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি নির্বাচনী আসনে ৮৬ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল

    আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন ২৮ নভেম্বর বুধবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি আসনে ৮৬জন প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেছেন। বুধবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত প্রার্থীরা নিজ নিজ নির্বাচনী আসনে এবং রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এরমধ্যে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও অন্যান্য দলের প্রার্থীসহ স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছে। রিটার্নিং অফিসারের অফিস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

    সূত্রের তথ্য অনুযায়ী ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনে ৮জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনে ২৭জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর-বিজয়নগর) আসনে ১৬জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ (কসবা-আখাউড়া) আসনে ১০জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর) আসনে ১৫জন এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ (বাঞ্ছারামপুর) আসনে ১০জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

    এর মধ্যে উলে­খ যোগ্য হচ্ছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী র. আ. ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, বিএনপি দলীয় প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার খালেদ হোসেন মাহবুব শ্যামল ও ড. তৌফিকুল ইসলাম মিথিল, ইসলামী আন্দোলনের সৈয়দ আনোয়ার হোসেন লিটন।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে বিএনপি দলীয় প্রার্থী ব্যারিস্টার রুমিনফারহানা ও শেখ মোহাম্মদ শামীম। জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীব, জাতীয় পার্টির রেজাউল ইসলাম ভ‚ঁইয়া।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ আসনে বিএনপি দলীয় মুশফিকুর রহমান।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী কাজী মামুনুর রশীদ। এ সময় জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দৌলা খান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শফিকুর রহমান ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক তাজিনা সারোয়ারসহ সহকারি রিটার্নিং অফিসার কার্যালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

    যাদের নাম পাওয়া গেছে তারা হলেন : ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনে বিভিন্ন দলের মোট ৭ জন প্রার্থী। এরা হলেন : সৈয়দ এ কে একরামুজ্জামান (বিএনপি), এবিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম (আওয়ামী লীগ), মোঃ ফায়েজুল হক (বিজেপি), মাওলানা আশরাফুল হক (ইসলামী ঐক্যজোট), মাওলানা হোসাইন আহমেদ (ইসলামী আন্দোলন), ইসলাম উদ্দিন দুলাল (ইসলামী ফ্রন্ট) ও সৈয়দ নজরুল ইসলাম (স্বতন্ত্র)।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইলÑআশুগঞ্জ) বিভিন্ন দলের মোট ২১জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এরা হলেন উকিল আব্দুস সাত্তার ভ‚ঁইয়া (বিএনপি), আবু আসিফ আহমেদ (বিএনপি), এসএন তরুন দে (বিএনপি), শেখ মোঃ শামীম (বিএনপি) ব্যারিষ্টার রুমিন ফারহানা (বিএনপি), আনোয়ার হোসেন মাষ্টার (বিএনপি), আক্তার হোসেন (বিএনপি), মঈনুদ্দিন মঈন (আওয়ামী লীগ স্বতন্ত্র), শাহজাহান আলম সাজু (আওয়ামী লীগ স্বতন্ত্র), হাজী সফিউল্লাহ (আওয়ামী লীগ স্বতন্ত্র), শাহ মফিজ (আওয়ামী লীগ স্বতন্ত্র), এডভোকেট সৈয়দ তানবীর আহমেদ কাউসার (আওয়ামী লীগ স্বতন্ত্র), আশরাফ উদ্দিন মন্তু (আওয়ামী লীগ স্বতন্ত্র), এডভোকেট মুখলেছুর রহমান (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী), আনিসুর রহমান (আওয়ামী লীগ স্বতন্ত্র), এডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা (জাতীয়পার্টি স্বতন্ত্র), এডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভ‚ঁইয়া (জাতীয়পার্টি), ঈশা খাঁ (কমিউনিস্ট পার্টি), মহিউদ্দিন মোল্লা (ইসলামী ফ্রন্ট), এডভোকেট তৈমুর রেজা শাহাজাদা (জেএসডি), জুনায়েদ আল হাবীবি (ইসলামী ঐক্যজোট)।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর-বিজয়নগর) আসনে বিভিন্ন দলের মোট ১৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এরা হলেন র. আ. ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী (আওয়ামী লীগ), ইঞ্জিনিয়ার খালেদ হোসেন মাহবুব শ্যামল (বিএনপি), তৌফিকুল ইসলাম মিথিল (বিএনপি), শাহরিয়ার ফিরোজ (সিপিবি), জুনায়েদ আল হাবিবী (ইসলামী ঐক্যজোট), মজিবুর রহমান হামিদী (খেলাফত আন্দোলন), সৈয়দ আনোয়ার আহমেদ লিটন (ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন), আব্দুল্লাহ আল হেলাল (জাতীয়পার্টি বিদ্রোহী), তারিকুর রউফ (গণফোরাম), জামাল রানা (জাতীয়পার্টি বিদ্রোহী), সেলিম কবীর (জাকের পার্টি), মোহাম্মদ উমর ইউসুফ খান (স্বতন্ত্র), মোঃ মঈনুদ্দিন (স্বতন্ত্র), আবদুল্লাহ হানিফ (স্বতন্ত্র), বশিরুল্লাহ জরু (স্বতন্ত্র), মাহমুদুল হক আক্কাস (বিএনএফ)।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ (কসবা-আখাউড়া) আসনে বিভিন্ন দলের মোট ৭জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এরা হলেন এডভোকেট আনিসুল হক (আওয়ামী লীগ), মুশফিকুর রহমান (বিএনপি), নাসিরউদ্দিন হাজারী (বিএনপি), ইঞ্জিনিয়ার মোসলেম উদ্দিন (বিএনপি), তারেক এ আদেল (জাতীয়পার্টি), দেলোয়ার হোসেন (ন্যাশনাল পিপলস পার্টি), মুফতি জসিম উদ্দিন (ইসলামী আন্দোলন)।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর) আসনে বিভিন্ন দলের মোট ১১ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এরা হলেন মো. এবাদুল করিম বুলবুল (আওয়ামী লীগ), তকদীর হোসেন মো. জসীম (বিএনপি), কাজী নাজমুল হোসেন তাপস (বিএনপি), মো. সালাউদ্দিন ভ‚ঁইয়া শিশির (বিএনপি), কাজী মামুনুর রশীদ (জাতীয় পার্টি), শাহ্ জিকরুল আহমেদ খোকন (জাসদ ইনু), মো. মেহেদী হাসান (ইসলামী ঐক্যজোট), এ কে এম আশরাফুল আলম (বাংলাদেশ মুসলিম লীগ), মো. ওসমান গণি রাসেল (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ), মো. শাহীন খান (বাংলাদেশের কমিউনিষ্ট পার্টি) ও মো. সায়েদুল হক সাঈদ (স্বতন্ত্র)।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ (বাঞ্ছারামপুর) আসনে বিভিন্ন দলের মোট ৯জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ক্যাপ্টেন অব. এ বি তাজুল ইসলাম (আওয়ামী লীগ), আব্দুল খালেক (বিএনপি), মেহেদী হাসান পলাশ (বিএনপি), এডভোকেট জিয়াউদ্দিন জিয়া (বিএনপি), রফিক শিকদার (বিএনপি), জেসমিন নুর প্রিয়াংকা (জাতীয়পার্টি), এডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ জামাল (সিপিবি), রেজওয়ানুল ইসলাম (ইসলামিক আন্দোলন বাংলাদেশ), এডভোকেট কে এম জাবির (জেএসডি)।


    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি আসনে বিএনপির ২৩ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

    BNP 2 - ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি আসনে বিএনপির ২৩ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

    পজিটিভ ডেস্কঃ

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি আসনে বিএনপির ২৩জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এ নিয়ে শুরু হয়েছে মুখরোচক আলোচনা। একেকজনের মনোনয়ন পত্রে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের একেক রকম স্বাক্ষর থাকায় এ নিয়ে শুরু হয়েছে বিভ্রান্তি। শেষ পর্যন্ত চূড়ান্ত মনোনয়ন কে পান সেটা দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন দলটির নেতা-কর্মীরা।

    জেলার ৬টি আসনে বিএনপির ২৩জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১-(নাসিরনগর) আসনে রয়েছে দলেন একক প্রার্থী।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১-(নাসিরনগর) আসনে বিএনপির মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও নাসিরনগর উপজেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব একে একরামুজ্জামান।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২-(সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনে বিএনপির মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৯জন প্রার্থী। এরা হলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া, বিএনপির আন্তজার্তিক বিষয়ক সহ-সম্পাদক ব্যারিষ্টার রুমিন ফারহানা, সরাইল উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আনোয়ার হোসেন, আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আবু আসিফ আহমেদ, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য শেখ মোহাম্মদ শামীম, সাবেক ছাত্রদল নেতা তরুন দে, বিএনপি নেতা আক্তার হোসেন, মোবারক হোসেন এবং আহসান উদ্দিন খান।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩-(সদর-বিজয়নগর) আসনে বিএনপির মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ২জন প্রার্থী। এরা হলেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রকৌশলী খালেদ হোসেন মাহবুব শ্যামল এবং সাবেক ছাত্রদল নেতা ডঃ তৌফিকুল ইসলাম।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪- (কসবা- আখাউড়া) আসনে বিএনপির মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৪জন প্রার্থী। এরা হলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক সংসদ সদস্য মুশফিকুর রহমান, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি নাছির উদ্দিন হাজারী, আখাউড়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মুসলিম উদ্দিন ও বিএনপি নেতা আলহাজ্ব সেলিম মাস্টার।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫-(নবীনগর) আসনে বিএনপির মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৩জন প্রার্থী। এরা হলেন কেন্দ্রীয় কৃষকদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তকদীর হোসেন মোহাম্মদ জসিম, বিএনপি নেতা কাজী নাজমুল হোসেন তাপস ও সালাহউদ্দিন ভূইয়া শিশির।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬-(বাঞ্চারামপুর) আসনে বিএনপির মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৪জন প্রার্থী। এরা হলেন বিএনপির নির্বাহীূ কমিটির সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল খালেক, বিএনপি নেতা মেহেদী হাসান, অ্যাডভোকেট জিয়াউদ্দিন ও রফিকুল ইসলাম সিকদার।

    এ ব্যাপারে জেলা বিএনপি’র সভাপতি মোঃ হাফিজুর রহমান মোল্লা কচি বলেন, ‘কৌশলগত কারণেই বিভিন্ন আসনে বিএনপি’র একাধিক নেতাকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ি সময়মতো একজন চূড়ান্ত মনোনয়ন পাবেন। চূড়ান্ত মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীর পক্ষেই কাজ করবেন দলের নেতা-কর্মীরা।